মেঘ কন্যার বিয়ে
প্রকাশিত: অক্টোবর ১২, ২০১৮
লেখকঃ

 183 বার দেখা হয়েছে

এই লেখক এর আরও লেখা পড়ুনঃ

ছড়াকার : তাসফিয়া শারমিন
,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,
শুনছো আজ নাকি মেঘ কন্যার বিয়ে,
সাজবে সে আজ মেঘের তুলো

নয়তো শিলা বৃষ্টি দিয়ে।
ও কৃষাণী তাড়াতাড়ি ঘরে ফিরে

করে ফেলো রান্না,
করবে শুরু বিয়েতে আজ

মেঘ কন্যা কান্না।
মেঘের কান্নায় যোগ দিবে যে

বজ্র বংশী আজ,
মেঘের দুঃখে ছাড়বে হয়তো

গর্জন সহ বাজ।
কালো কাক সাদা বক

ছাড়বে না আজ ঘর,
আষাঢ় পুত্র শ্রাবণ নাকি

মেঘ কন্যার বর।
ঝড়ো হাওয়া শুকনো পাতা

কলমি সুবাস দিয়ে,
সাজবে পালকী ফিরবে সে যে

মেঘ কন্যা কে নিয়ে।
ছোট খুকি রঙ মেখেছে

কাঁদা মাটি দিয়ে,
নাচবে সে যে ঘুঙুর পায়ে আজ যে

মেঘ কন্যার বিয়ে।

সম্পর্কিত পোস্ট

যদি পাশে থাকো

যদি পাশে থাকো

তাসফিয়া শারমিন ** আজকের সকালটা অন্য রকম। সাত সকালে আম্মু বকা দিলো। মানুষের ঘুম একটু দেরিতে ভাঙতেই পারে। তাই বলে এত রাগার কী আছে ?একেবারে যে দোষ আমারও তাও নয়। মানুষ ঘুম থেকে উঠে ফোনে বা দেওয়াল ঘড়িতে সময় দেখে। কিন্তু আমি উঠি জানালার পর্দা সরিয়ে বাইরের আলো দেখে।কে জানে...

কুড়িয়ে পাওয়া রত্ন

কুড়িয়ে পাওয়া রত্ন

অনন্যা অনু 'আমিনা বেগম' মেমোরিয়াল এতিমখানার গেট খুলে ভেতরে ঢুকতেই ওমরের বুকটা ধুক ধুক করতে শুরু করে। ওমর ধীর গতিতে ভেতরে প্রবেশ করে। চারদিকে তখন সবেমাত্র ভোরের আলো ফুটতে শুরু করেছে। ওমর গত রাতের ফ্লাইটে আমেরিকা থেকে এসেছে। সে এসেই সোজা আমিনা বেগম মেমোরিয়াল এতিমখানায়...

দাদাভাইকে চিঠি

দাদাভাইকে চিঠি

প্রিয় দাদাভাই, শুরুতে তোকে শরতের শিউলি ফুলের নরম নরম ভালোবাসা। কেমন আছিস দাদাভাই? জানি তুই ভালো নেই, তবুও দাঁতগুলো বের করে বলবি ভালো আছি রে পাগলী! দাদাভাই তুই কেন মিথ্যা ভালো থাকার কথা লেখিস প্রতিবার চিঠিতে? তুই কি মনে করিস আমি তোর মিথ্যা হাসি বুঝি না? তুই ভুলে গেছিস,...

৮ Comments

  1. রেজাউল করিম

    অসম্ভব ভালো লেগেছে।

    Reply
    • Tasfiya Sharmin

      thank you

      Reply
  2. আফরোজা আক্তার ইতি

    বাহ! চমৎকার লাগলো। প্রকৃতির বৃষ্টিধারাকে খুব সুন্দরভাবে উপমা দিয়ে লিখেছেন। খুব ভালো লাগলো। আসলেই যখন বৃষ্টি নামে মনে হয় আকাশ অঝোরে কেঁদে চলেছে, গুরুম গুরুম ঢাক বাজছে, চারদিক একটু পর পর আলোয় ঝকঝক করে উঠছে। এ যেন এক অপরূপ দৃশ্য। আপনি এই দৃশ্য উপমা দিয়ে বাস্তব ফুটিয়ে তুলেছেন।
    বানানে তেমন কওওন ভুল নেই। তবে চরণগুলোর মাঝে স্পেস বেশি। আর বিরামচিহ্নের ব্যবহার আরো ভালো হতে হবে। শব্দগুচ্ছ আরো জোরালো করতে হবে। শুভ কামনা রইল অনেক।

    Reply
    • Tasfiya Sharmin

      thanks apu

      Reply
  3. আফরোজা আক্তার ইতি

    বাহ! চমৎকার লাগলো। প্রকৃতির বৃষ্টিধারাকে খুব সুন্দরভাবে উপমা দিয়ে লিখেছেন। খুব ভালো লাগলো। আসলেই যখন বৃষ্টি নামে মনে হয় আকাশ অঝোরে কেঁদে চলেছে, গুরুম গুরুম ঢাক বাজছে, চারদিক একটু পর পর আলোয় ঝকঝক করে উঠছে। এ যেন এক অপরূপ দৃশ্য। আপনি এই দৃশ্য উপমা দিয়ে বাস্তব ফুটিয়ে তুলেছেন।
    বানানে তেমন কোন ভুল নেই। তবে চরণগুলোর মাঝে স্পেস বেশি। আর বিরামচিহ্নের ব্যবহার আরো ভালো হতে হবে। শব্দগুচ্ছ আরো জোরালো করতে হবে। শুভ কামনা রইল অনেক।

    Reply
  4. Naeemul Islam Gulzar

    খুব সুন্দর একটি শিশুতোষ ছড়া।যথেষ্ট ভালো লেগেছে।শুভকামনা আপনাকে<3

    Reply
  5. Rifat

    ছড়াটি অসাধারণ হয়েছে। ছন্দের মিলের তো কোনো জুড়ি নেই।
    শুভ কামনা।

    Reply
  6. Halima tus sadia

    অসাধারণ লিখেছেন।
    কতো সুন্দর উপমা দিয়েছেন।
    পড়ে ভালো লাগলো।
    একসময় পালকী দিয়ে বউ আনতো বাড়িতে।সবাই বউ দেখার জন্য উদগ্রীব হয়ে থাকতো।
    সবাই পায়ে আলতা দিতো।
    কতো আনন্দ করতো।

    আপনি মাঝখানে অনেক স্পেস রাখছেন।
    আরও ভালো লিখবেন।

    শুভ কামনা রইলো।

    Reply

Submit a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *