ভালোবাসা অবিরাম
প্রকাশিত: মার্চ ৬, ২০১৮
লেখকঃ vickycherry05

 288 বার দেখা হয়েছে

এই লেখক এর আরও লেখা পড়ুনঃ vickycherry05

গল্প লেখকঃ
মাহমুদ সুজন
(মার্চ-২০১৮)
…………

প্রিয়!
কলিজার টুকরা বোন আমার!
ভালোবাসা অবিরাম!
তোমার জন্য!

মায়ের কাছে শুনলাম অনেক অভিমান জমে আছে নাকি আমার ওপরে। এখন আর ভাই মাথায় তেল দিয়ে দেয় না উকুন বেছে দেয় না, আইসক্রিম এনে দেয় না, ভাত খাইয়ে দেয় না, ঘুরতে নিয়ে যায় না, একটু ফোন করে না। অনেক অভিযোগ রয়েছে আমার উপরে। প্রিয় বোন আমার তোমার জন্য আমার ভালোবাসা একটুও কমে নাই। তোমাকে অনেক ভালোবাসি। যে ভালবাসার একটু কমতি নেই। আমার কলিজার টুকরা বোন। এই আমি আজ প্রবাসে অনেক ব্যস্ত। দিনে ষোল ঘন্টা ডিউটি করে বাসায় ফিরে রান্না করতে হয়, কাপড় চোপড় ধুয়ে দিতে হয়। আমার কলিজার টুকরা বোন তোমাদের ভবিষ্যতের জন্য, তোমাকে সুন্দর একটা জীবন দেয়ার জন্য তোমার ভাই অক্লান্ত পরিশ্রম করে‌ চলছে। আমার এ পরিশ্রম আমাকে একটুও কষ্ট দেয়না যখন মনে পরে আমার আদরের বোনটির কথা। আমার ময়না পাখি তোমার জন্য আমার ভালোবাসা থাকবে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত। তোমার মনে আছে তুমি ক্লাস সেভেনে থাকতে একবার স্কুলে অসুস্থ হয়ে পরেছিলে। তখন আমি ঢাকা ছিলাম। মা আমাকে ফোন করে বলেছিল রেজবি অসুস্থ হয়ে পড়েছে তুই তাড়াতাড়ি বাড়ি চলে আয়। এ খবর শুনে আমার যে সেদিন কি অবস্থা হয়েছিল সেটা তোমাকে বুঝতে পারবো না। আমি শুধু আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করেছিলাম আল্লাহ আমার কলিজার কলিজাকে তুমি সুস্থ করে দাও। আর আমি তখনি ছুটে আসি বাড়িতে। এসে দেখি তুমি সোহাগ ক্লিনিকে ভর্তি। শুয়ে আছো ক্লিনিকে। তখন তোমার হুঁশ ছিল না। ডাক্তার বলেছিল তোমার এপেন্টিস হয়েছে অপারেশন করা লাগবে। এ খবর শুনে তখন আমিও জ্ঞান হারিয়ে ফেলি। আমার ছোট্ট বোনটা যাকে আমার এখনো আমার খাইয়ে দেয়া লাগে, মাথায় তেল দিয়ে দেয়া লাগে, সাথে নিয়ে ঘুমানো লাগে তার অপারেশন হবে। পরদিন দুপুর ১২ টায় তোমার অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যাওয়া হয় আর অপারেশন শেষে ৩টার সময় বের করে তোমাকে। ওটি থেকে বের করে ছোট্ট একটা খাটে শুইয়ে রেখেছিল তোমাকে। সেদিন তোমাকে দেখার পরে শুধু দু’চোখ বেয়ে পানি পড়ছে। মনে হয়েছিল আমার কলিজায় কে যেন ছুরি দিয়ে বার বার আঘাত করতে করতে আমাকে শেষ করে দিচ্ছে। মনে হয়েছিল আমি মরে যাব তোমার কষ্ট দেখে। তোমার জ্ঞান ফিরেছিল ২৪ ঘন্টা পর। আর আমি তোমার ভাই সেই ২৪ ঘন্টাই দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে শুধু তোমার জ্ঞান ফেরার অপেক্ষায় ছিলাম। পরে তোমার জ্ঞান ফিরে আর আমিও যেন প্রাণ ফিরে পাই। তুমি সাতদিন ক্লিনিকে ছিলে। সাত দিনে সাত মিনিটের জন্য আমি তোমার চোখের আড়াল হইনি। তোমাকে খাইয়ে দিয়েছি, চুলে বিলি কেটে দিয়েছি, তোমাকে কাঁধের উপর রেখে সাতদিন কাটিয়ে দিয়েছি। আমার গোসল খাওয়া-দাওয়া কিছুই ছিলো না।
সাতদিন পরে তোমাকে বাড়িতে নিয়ে আসি। আমার কলিজার টুকরা তোমার কি মনে আছে নাক ফোঁড়ানোর কথা। মনে পড়ে আগে আমি আমার নাকে ট্রাই করেছি পরে তোমাকে নাক ফোঁড়াতে দেই। প্রিয় বোন আমার মনে আছে তোমার জেএসসি পরীক্ষার কথা। শীতের সকালে প্রতিদিন আমি আগে উঠে তোমার পড়ার বই গুছিয়ে টেবিলের উপর রেখে দিতাম। তোমার জন্য গরম গরম চা করে দিতাম। তোমার কোচিং সেন্টার থেকে নিয়ে আসতাম তোমাকে। আমার কলিজার টুকরা তোমার জন্য আমার ভালোবাসা একটুও কমে নাই। আমি আসবো আবার। তোমার মাথায় তেল দিয়ে দিবো তোমার মাথার সব উকুন বেছে দিয়ে মাথায় সিথি কেটে দিবো। লাল ফিতে দিয়ে বেনী করে দিবো। আমি ভুলে যাইনি এগুলো এখনো। তোমাকে নিয়ে ঘুরতে যাবো। আইসক্রিম কিনে দিবো। নিজের হাতে খাইয়ে দিবো। পাগলী বোন আমার।
আমার উপরে রাগ করে থাকিস না। ভালো থাকিস। ভালোবাসা অবিরাম!

সম্পর্কিত পোস্ট

অঘোষিত মায়া

অঘোষিত মায়া

বইয়ের প্রিভিউ ,, বই : অঘোষিত মায়া লেখক :মাহবুবা শাওলীন স্বপ্নিল . ১.প্রিয়জনের মায়ায় আটকানোর ক্ষমতা সবার থাকে না। ২.মানুষ কখনো প্রয়োজনীয় কথা অন্যদের জানাতে ভুল করে না। তবে অপ্রয়োজনীয় কথা মানুষ না জানাতে চাইলেও কীভাবে যেন কেউ না কেউ জেনে যায়। ৩. জগতে দুই ধরণের মানুষ...

আমার জামি

আমার জামি

জান্নাতুল না'ঈমা জীবনের খাতায় রোজ রোজ হাজারো গল্প জমা হয়। কিছু গল্প ব্যর্থতার,কিছু গল্প সফলতার। কিছু আনন্দের,কিছু বা হতাশার। গল্প যেমনই হোক,আমরা ইরেজার দিয়ে সেটা মুছে ফেলতে পারি না। চলার পথে ফ্ল্যাশব্যাক হয়। অতীতটা মুহূর্তেই জোনাই পরীর ডানার মতো জ্বলজ্বলিয়ে নাচতে...

ভাইয়া

ভাইয়া

ভাইয়া! আবেগের এক সিক্ত ছোঁয়া, ভালবাসার এক উদ্দীপনা, ভাইয়া! ভুলের মাঝে ভুল কে খোঁজা, আর ভালবাসার মাঝে ভাইকে খোঁজা, দুটোই এক কথা! ভুল তো ভুল ই তার মাঝে ভুল কে খোঁজা যেমন মূর্খতা বা বোকামি। ঠিক তেমনি ভালবাসার মাঝে ভাইকে খোজাও মূর্খতা! আমার কাছে ভাইয়া শব্দটাই ভালবাসার...

০ Comments

Submit a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *