নিজেকে জানি
প্রকাশিত: অক্টোবর ১১, ২০১৮
লেখকঃ

 46 বার দেখা হয়েছে

এই লেখক এর আরও লেখা পড়ুনঃ

মোঃ শোয়াইব
নিজের স্বার্থ সারাক্ষন,

সুযোগ পেলেই ভাবি
ভাবি না তো আমি,

অন্যের কি দাবী।
শুনলে নিজের প্রশংসা,

খুশি হয়ে যাই
দোষ ধরলে আমার,

বেজার মুখ তাই।
সরি বলার তেমন,

নাই একটা অভ্যাস
নিজকে নিজে বলি,

এগিয়ে যাও সাব্বাস।
কেউ করলে শুনাম,

খুশিতে হই আত্বহারা
কোন কিছু ভাবি না,

সদা নিজের স্বার্থছাড়া।
রাগ হলে বেশী,

ফুলে হই বালিশ
ঠিক হই আবার,

করলে একটু মালিশ।
সব বিষয়ে সবল নয়,

আছে বেশ দুর্বলতা
তাইতো আমার কাজে,

ধরা দেয় না সফলতা।
নিজকে নিজে চিনিনা,

বানী দেই সরলতা
আসলে তা সত্য নয়,

মনে শক্ত কুটিলতা।
নিজকে বড় ভাবি,

করতে চাই জাহির
আসলে তার উল্টো,

স্বরূপ হয় বাহির।
চেহারাটা কালো আমার,

ভিতরটা যে কি?
আমি জানি আমাকে,

তোমরা জানো নি!
সবসময় সবখানে,

নিজের বাজনা বাজাই,
বড় হতে চেয়ে আমি,

নিজকে আরো পঁচাই।

সম্পর্কিত পোস্ট

যদি পাশে থাকো

যদি পাশে থাকো

তাসফিয়া শারমিন ** আজকের সকালটা অন্য রকম। সাত সকালে আম্মু বকা দিলো। মানুষের ঘুম একটু দেরিতে ভাঙতেই পারে। তাই বলে এত রাগার কী আছে ?একেবারে যে দোষ আমারও তাও নয়। মানুষ ঘুম থেকে উঠে ফোনে বা দেওয়াল ঘড়িতে সময় দেখে। কিন্তু আমি উঠি জানালার পর্দা সরিয়ে বাইরের আলো দেখে।কে জানে...

কুড়িয়ে পাওয়া রত্ন

কুড়িয়ে পাওয়া রত্ন

অনন্যা অনু 'আমিনা বেগম' মেমোরিয়াল এতিমখানার গেট খুলে ভেতরে ঢুকতেই ওমরের বুকটা ধুক ধুক করতে শুরু করে। ওমর ধীর গতিতে ভেতরে প্রবেশ করে। চারদিকে তখন সবেমাত্র ভোরের আলো ফুটতে শুরু করেছে। ওমর গত রাতের ফ্লাইটে আমেরিকা থেকে এসেছে। সে এসেই সোজা আমিনা বেগম মেমোরিয়াল এতিমখানায়...

দাদাভাইকে চিঠি

দাদাভাইকে চিঠি

প্রিয় দাদাভাই, শুরুতে তোকে শরতের শিউলি ফুলের নরম নরম ভালোবাসা। কেমন আছিস দাদাভাই? জানি তুই ভালো নেই, তবুও দাঁতগুলো বের করে বলবি ভালো আছি রে পাগলী! দাদাভাই তুই কেন মিথ্যা ভালো থাকার কথা লেখিস প্রতিবার চিঠিতে? তুই কি মনে করিস আমি তোর মিথ্যা হাসি বুঝি না? তুই ভুলে গেছিস,...

৭ Comments

  1. রেজাউল করিম

    শুনাম–>সুনাম
    আত্বহারা–>আত্মহারা
    শুভ কমনা রইল।

    Reply
  2. MD Soaibe

    ধন্যবাদ ভাই, ভুল ধরিয়ে দেওয়ার জন্য। পরবর্তী সময় এই দিকে খেয়াল রাখবো। দোয়া রাখিবেন আমার জন্য।

    Reply
  3. আফরোজা আক্তার ইতি

    দারুণ। এ ছড়াটা প্রত্যেকের পড়া উচিৎ বিশেষ করে ছোট শিশুদের। এই ছড়া থেকে অনেক কিছুই শেখার আছে, বাচ্চারা এই কবিতা পড়লে অনেক কিছু শিখতে পারবে।
    ভুল সবারই হয়, মানুষ মাত্রই ভুল,সেই ভুল কেউ ধরিয়ে দিলে শুধরে নেয়া উচিৎ। সেটাকে আঁকড়ে ধরে রাখলে নিজেরই ভুল হবে। আবার ভালো কাজের প্রশংসা সবাই করে, তাতে অহংবোধ করাও নিতান্তু বোকামি। শুধু নিজের কথা ভাবলেই চলবে না, অন্যের কথা ভেবেও চলতে হবে।
    বানানে দুইটা ভুল আছে। শুধরে দেই।
    শুনাম- সুনাম।
    আত্বহারা- আত্মহারা।
    ছন্দমিল সুন্দর। শুভ কামনা রইল।

    Reply
  4. MD Soaibe

    আসলে নিজের ভুল কখনো নিজে ধরতে পারে না। অন্য জন ধরিয়ে দেয়। এজন্য আপনাদের ধন্যবাদ। সামনে এসব বানানের দিকে খেয়াল রাখবো।

    Reply
  5. Naeemul Islam Gulzar

    খুব চমৎকার ছড়া।একটি ছড়ার ক্ষেত্রে স্বার্থক অন্তমিল জরুরী।এক্ষেত্রে ছড়াটিতে দূর্বলতা প্রকাশ পেয়েছে।তবুও ছড়াটি শিক্ষামূলক হিসেবে বেশ চমৎকার।শুভকামনা♥

    Reply
  6. shahrulislamsayem@gmail.com

    এই ছড়াটা কেমন যেন খাপছাড়া লাগলো, বিশেস কিছু লাইন বীশি খাপছাড়া লেগেছে……………আর বানান ভুল…………’শুনাম’ -‘সুনাম’/’আত্বহারা’ -‘আত্মহারা’

    Reply
  7. Halima tus sadia

    চমৎকার একটি ছড়া।
    পড়ে ভালো লাগলো।মনোমুগ্ধকর লেখা।
    ছড়া থেকে অনেক কিছু শিখার আছে।

    আমরা কখনো নিজের ভুল স্বীকার করতে চাই না।কেউ যদি নিজের প্রশংসা কর তাহলে খুশিতে আত্মহারা হই।ভুলগুলো ধরে দিলে ভালো মনে করি না।
    সুনাম করলে তাকে ভালো হিসেবে অবহিত করি।
    বড় হতে গিয়ে নিজের বাজনা বাজাই।এতে আরও নিজেকে পঁচাই।
    আত্বহারা–আত্মহারা
    শুনাম–সুনাম
    শুভ কামনা রইলো।

    Reply

Submit a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *