শকুনের থাবা
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৮
লেখকঃ

 30 বার দেখা হয়েছে

এই লেখক এর আরও লেখা পড়ুনঃ

লেখা: তানজিনা তানিয়া
.
যখন প্রলয়ঙ্কারী ঝড় উদ্দীপ্ত গতিতে নিরুত্তাপ বসনা নিয়ে ধেয়ে আসে,
তখন উদোম স্বর্ণলতায় কম্পনের ঝংকার উঠে।
মহাসাগরের হিংস্রতা থেমে যায়। ঠিক এমন করেই নিকষ কালো আর আবছা ঘোরে সমস্ত ভুলগুলো ঝেপে আসে আমার মা-জননীর কূলে।
তার উদ্দামতা ফিকে হয়ে যায় ধানের ক্ষেতে বন্ধুর ভূমিতে, আর সেই উঁচু-নিচু ভূমিতে কোকিলা কণ্ঠে গান গায় হায়েনা।
হিংস্র নজরে ঝলসে যায়, দুমড়ে যায় আমার মা-জননী।।
শুকুনেরা বিবেকহীনের মতো খুবলে খায় জননীর সম্পদ।
দুর্যোগের মতো অসভ্যতা করে নপুংসক।
সভ্যতা ভদ্রতা দলিত মথিত হয় শুকুনের পদতলে।
জননীকে অভিশপ্ত করে তোলে স্বার্থান্বেষী।
তীব্র ভাংচুরে নেতিয়ে পড়ে সম্ভ্রম আর সরলতা।
ফিরাউন হয়ে ওঠে জননীর কতিপয় সন্তান।
জননীর রূপ যৌবন ধর্ষকের মতো শুষে নেয় পরিচিত শুকুনদল।
আমি কাঁদি, আপন অধর বেয়ে ঝরে লাঞ্চিত জননীর চক্ষুজল।
না, ভালো নেই। একটুখানিও ভালো নেই আমার জননী প্রিয় বাংলাদেশ।

সম্পর্কিত পোস্ট

তুলসী বনের বাঘ

তুলসী বনের বাঘ --আল-মুনতাসির। চিনলে নাকো তাকে সে যে তুলসী বনের বাঘ ! ছদ্মবেশে ছড়িয়ে দিলো বিষম বিষের নাগ। ইচ্ছে করে কামড় খেলে, ভরলে হৃদয় বিষের নীলে কী করে আর দেখবে প্রিয় কৃষ্ণচুড়ার বাগ ? চিনলে নাকো তাকে সে যে তুলসী বনের বাঘ ! চোখে তোমার বিষের তেজে পর্দা এলো নেমে, জগত...

ভালোবাসা রং বদলায়

: ভালোবাসা রং বদলায় লেখা: অদ্রিতা জান্নাত ছোট মেয়েটা খুব করে কেঁদে কেঁদে অনুরোধ করেছিল আমি যেন একটি হলেও তার কাছ থেকে ফুল কিনে নেই, ঠিক যতবার আমি তাকে ঠেলে দূরে সরিয়ে দিচ্ছিলাম সে যেন ঠিক ততটাই আমার পিছু ছুটতে লাগল। আচ্ছা, এই যে শিশুটা যে কিছু টাকার বিনিময়ে আমাকে...

গোপন আর্তনাদ

কবিতা - গোপন আর্তনাদ #জয়নাল_আবেদীন মনে পড়ে কাজল চোখে মুগ্ধ করে রাখতে আমায়। কখনো নির্মল হাসিতে ভরিয়ে দিতে চারপাশ। ভুলে গেছো সেদিন ঘাটের পাশে নূপুর পায়ে নৃত্যের তালে এসেছিলে। লাল শাড়িটা এলোমেলো জড়িয়ে, মুখটা কেমন গম্ভীর ও করুণ দেখেছিলাম। বারবার আকাশে মেঘের গর্জন, বৃষ্টির...

৪ Comments

  1. আরাফাত তন্ময়

    বড্ড শক্ত ভাষায় চাপা প্রতিবাদ। ভালো লাগলো। শব্দটি উদাম মনে হয়(খালি/শূন্য গা)। যথেষ্ট ভালো হয়েছে। অনুশীলনে আরও উন্নতি হবে আশা করি।
    শুভ কামনা রইলো।

    Reply
  2. আফরোজা আক্তার ইতি

    খুবই সুন্দর হয়েছে। আমাদের দেশ আপাতদৃষ্টিতে সুখী মনে হলেও হায়েনার অত্যাচারে এ দেশ জর্জরিত। কবিতার শব্দচয়ন মনোমুগ্ধকর। ভাবাবেগও স্পষ্ট।
    আন্তরিক শুভ কামনা রইল।

    Reply
  3. Halima tus sadia

    চমৎকার কবিতা।সুন্দর লেখনী।
    পড়ে পাঠিকা মুগ্ধ হলো।

    ইসলাম শান্তির ধর্ম।কিন্তু আজ আমরা ইসলামের রীতিনীতি ভুলে খারাপ পথে যাচ্ছে।দেশটা দিন দিন খারাপের দিকে ধাবিত হচ্ছে।
    দেশে ধর্ষণের খবর প্রতিদিনই শুনি।

    শকুনেরা বিবেকহীনের মতো খুবলে খায় জননীর সম্পদ।
    সভ্যতা,ভদ্রতা সব চলে গেছে পায়ের তলে।
    বানানেও তেমন ভুল নেই।
    শুভ কামনা রইলো।

    Reply
  4. মাহফুজা সালওয়া

    বেশ কঠিন শব্দ গাঁথুনি।
    বুঝাই যাচ্ছে,কবির শব্দভাণ্ডার সমৃদ্ধ।
    ভালো লেগেছে কবিতাটা।
    চর্চা চালিয়ে যাবেন।
    শুভকামনা।।

    Reply

Submit a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *