পথশিশুর ভাবনার গল্প
প্রকাশিত: মার্চ ৬, ২০১৮
লেখকঃ vickycherry05

 22 বার দেখা হয়েছে

এই লেখক এর আরও লেখা পড়ুনঃ vickycherry05

গল্প লেখকঃ
মোঃশাহাদাত হোসেন রাজু
(মার্চ – ২০১৮)
………………

সেইদিন চট্টগ্রাম একটি রেল স্টেশনের যাত্রী ছাউনিতে বসে ভবের দেশে পাড়ি দিয়ে ছিলাম। ধ্যানমগ্নতার কারণে খেয়াল করতে পারিনি আমার বামপাশে একটি সাত বা আট বছরের ছেলে বসে আছে। হঠাৎ ছেলেটি আমাকে ডেকে বলে ভাইয়া ঐ দিকে কি দেখেন।আমি ওর ডাকে সাড়া দেই নাই বলে একটা পাথর আমার দৃষ্টি যে দিকে সেই দিকে ছুটে মারে। আমি হঠাৎ চমকে উঠেছিলাম। পাশে তাকিয়ে দেখি ছেলেটির গায়ে ছিঁড়া একটা ছোট প্যান্ট এবং তালি দেওয়া একটা শার্ট চুল গুলো এলোমেলো শরীর থেকে হালকা দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। আমি ওর দিকে তাকিয়ে কিছু না বলতে দেখে ছেলেটি বলে ভয় পাইছেন? আমি বললাম ভয় পাবো কেন? বলে আমাকে দেখলে সবাই ভয় পায়, আমাকে দেখলে সবাই দূরে চলে যায়। আমি বললাম কি বলো তাই নাকি?(মন মনে বললাম ভয়ে না দুর্গন্ধে সবাই দূরে চলে যায়)ছেলেটি বলল হ্যাঁ তবে আপনার সাহস দেখে আমি আশ্চর্য হলাম এখনও আমার পাশে বসে আছেন।(ভাবলাম হয়তো প্রথম দেখলে দূরেই থাকতাম) একটু নড়ে বসতে দেখে ছেলেটি বলে ভয় পাইছেন মনে হয়। আমি একটু হতভম্ব হয়ে বললাম আজ তোমার সাথে গল্প করব। কালি মাখা মুখখানি কী মায়াবী দৃষ্টিতে তাকিয়ে আছে আমার দিকে। মনে হয় এই প্রথম কেউ তার সাথে গল্প করতে চাইছে। আসলে তাই, কেউ নাকি তার সাথে এভাবে কথা বলেনি।ছেলেটি মন খুলে কথা বলা শুরু করলো। বলতে লাগল জানেন আমি খুব সুখী। আমার কোন চিন্তা বা ভয় নেই। আমি সারাদিন যেখানে খুশি সেখানে ঘুরে বেড়াই কখনও গাড়িতে কখনও হেঁটে। সেদিন কি ঘটলো, বাসে উঠে যখন বসতে গেলাম কালো কোর্ট ট্রাই পড়া এক লোক খালি সিটের পাশের সিটে বসা ছিল। আমি যখন খালি সিটটাতে বসতে গেলাম ঐ লোকটি ভয়ে অন্য সিটে চলে যায়(হাসতে হাসতে বলিতেছে)। আবার একদিন ঐ বাড়িতে মেজবান হচ্ছিল আমিও গেলাম। গিয়ে যখন খাইতে বসলাম সেখানেও পাশে যারা বসে ছিল তারা সবাই আমাকে দেখে অন্য টেবিলে চলে যায়। আমি একাই একটি টেবিলে বসে পেট ভরে খেয়েছিলাম।আসার পথে সবাই সম্মানের সাথে আমাকে পথ করে দেয়।(হাসির আওয়াজ টা আরও বেড়ে গেল)।হঠাৎ অন্যমনস্ক হয়ে আমি চারিদিকে তাকিয়ে দেখি দূর থেকে কিছু লোক আমার দিকে বাঁকা চোখে তাকিয়ে আছে। আমি একটু ইতস্তত বোধ করলাম। ছেলেটি তা দেখে আমাকে বলল জানেন ওরা কি দেখতেছে? জিজ্ঞাসা করলাম কী? বলল আপনার সাহসীকতা দেখতেছে। একটু হেসে বললাম হয়তো তাই। আমার মনে মনে একটু খারাপ লাগছিল আর ভাবছিলাম, আহারে পথশিশুদের জীবন আর তাদের ভাবনা।

সম্পর্কিত পোস্ট

অঘোষিত মায়া

অঘোষিত মায়া

বইয়ের প্রিভিউ ,, বই : অঘোষিত মায়া লেখক :মাহবুবা শাওলীন স্বপ্নিল . ১.প্রিয়জনের মায়ায় আটকানোর ক্ষমতা সবার থাকে না। ২.মানুষ কখনো প্রয়োজনীয় কথা অন্যদের জানাতে ভুল করে না। তবে অপ্রয়োজনীয় কথা মানুষ না জানাতে চাইলেও কীভাবে যেন কেউ না কেউ জেনে যায়। ৩. জগতে দুই ধরণের মানুষ...

আমার জামি

আমার জামি

জান্নাতুল না'ঈমা জীবনের খাতায় রোজ রোজ হাজারো গল্প জমা হয়। কিছু গল্প ব্যর্থতার,কিছু গল্প সফলতার। কিছু আনন্দের,কিছু বা হতাশার। গল্প যেমনই হোক,আমরা ইরেজার দিয়ে সেটা মুছে ফেলতে পারি না। চলার পথে ফ্ল্যাশব্যাক হয়। অতীতটা মুহূর্তেই জোনাই পরীর ডানার মতো জ্বলজ্বলিয়ে নাচতে...

ভাইয়া

ভাইয়া

ভাইয়া! আবেগের এক সিক্ত ছোঁয়া, ভালবাসার এক উদ্দীপনা, ভাইয়া! ভুলের মাঝে ভুল কে খোঁজা, আর ভালবাসার মাঝে ভাইকে খোঁজা, দুটোই এক কথা! ভুল তো ভুল ই তার মাঝে ভুল কে খোঁজা যেমন মূর্খতা বা বোকামি। ঠিক তেমনি ভালবাসার মাঝে ভাইকে খোজাও মূর্খতা! আমার কাছে ভাইয়া শব্দটাই ভালবাসার...

০ Comments

Submit a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *