অশান্ত পৃথিবী
প্রকাশিত: নভেম্বর ২২, ২০১৮
লেখকঃ

 224 বার দেখা হয়েছে

এই লেখক এর আরও লেখা পড়ুনঃ

ফায়জুল ইসলাম
————————————–
পৃথিবী তুমি কেন এত অশান্ত?
তোমার নিরবতা কি কখনো জাগ্রত হবার নয়?
প্রশান্ত সাগরের মতো এত দূ্র্লভ কেন তুমি?
নিশ্চয় বিধাতা ঘরেছে তোমায়?
স্হির হবার সময় টুকো ও তোমার নাই।
গ্রীষ্ম আসে ধরায়,
এ সময়ে খুব গরম পড়ে যায়।
খালবিল শুকিয়ে চৌচির,
কখনো ঝড় হয় জানমালের হয় ক্ষতি।
গ্রীষ্মের পরে বর্ষা আসে এ মহিতে,
চিল যেন মেঘের বার্তা নিয়ে আসে কহিতে।
মহান রাব্বি কারিমের কি সৃষ্টি,
যখন তখন ঝড় ঝড় করে পড়তে থাকে বৃষ্টি।
শরৎকালে মাঝিরা পাল তুলে চলে উর্মির উতরালে,
গাঢ় নিল আকাশে সাদা মেঘ ভেসে বেড়ায়।
দূর হতে দেখি কাশ ফুল দোল খায়,
বাতাসে শেউলি ফুলের গন্ধ পাওয়া যায়।
নবান্ন উৎসব দেখা যায় হেমন্তে
কৃষকদের মুখে আসে হাসি ফুটাতে।
শীত ঋতুর আগমনে,
ফুল ফল বিশীর্ণ দেখায়,
বসন্ত আসে ধরায়,
ফুলে ফলে মেতে উঠে ভ্রমরাই।

সম্পর্কিত পোস্ট

তুলসী বনের বাঘ

তুলসী বনের বাঘ --আল-মুনতাসির। চিনলে নাকো তাকে সে যে তুলসী বনের বাঘ ! ছদ্মবেশে ছড়িয়ে দিলো বিষম বিষের নাগ। ইচ্ছে করে কামড় খেলে, ভরলে হৃদয় বিষের নীলে কী করে আর দেখবে প্রিয় কৃষ্ণচুড়ার বাগ ? চিনলে নাকো তাকে সে যে তুলসী বনের বাঘ ! চোখে তোমার বিষের তেজে পর্দা এলো নেমে, জগত...

ভালোবাসা রং বদলায়

: ভালোবাসা রং বদলায় লেখা: অদ্রিতা জান্নাত ছোট মেয়েটা খুব করে কেঁদে কেঁদে অনুরোধ করেছিল আমি যেন একটি হলেও তার কাছ থেকে ফুল কিনে নেই, ঠিক যতবার আমি তাকে ঠেলে দূরে সরিয়ে দিচ্ছিলাম সে যেন ঠিক ততটাই আমার পিছু ছুটতে লাগল। আচ্ছা, এই যে শিশুটা যে কিছু টাকার বিনিময়ে আমাকে...

গোপন আর্তনাদ

কবিতা - গোপন আর্তনাদ #জয়নাল_আবেদীন মনে পড়ে কাজল চোখে মুগ্ধ করে রাখতে আমায়। কখনো নির্মল হাসিতে ভরিয়ে দিতে চারপাশ। ভুলে গেছো সেদিন ঘাটের পাশে নূপুর পায়ে নৃত্যের তালে এসেছিলে। লাল শাড়িটা এলোমেলো জড়িয়ে, মুখটা কেমন গম্ভীর ও করুণ দেখেছিলাম। বারবার আকাশে মেঘের গর্জন, বৃষ্টির...

৬ Comments

  1. সুস্মিতা শশী

    ঘরেছে – গড়েছে

    স্হির হবার সময় টুকো ও তোমার নাই – টুকুও
    শেউলি ফুল – শিউলি।
    ভ্রমরাই – ভ্রমর অথবা ভোমর বাভভোমরা ব্যবহৃত হয়।
    ষড় ঋতুর বর্ণনা দেওয়া হয়েছে এই কবিতায় কিন্তু কিছু কিছু লাইন যেন খাপছাড়া লাগছিল। পরেরবার আরো ভালো কিছু আশা করছি।

    Reply
  2. Nafis Intehab Nazmul

    ধারাবাহিকভাবে ষড় ঋতুর বর্ণনা দেওয়া হয়েছে কবিতায়।
    মূলত, পৃথিবী না বলে বাংলাদেশ বললে ভালো হত। কারন, ষড়ঋতু দুনিয়ার সব জায়গায় পাওয়া যায় না। এটা শুধু আমাদের দেশেই পাওয়া যায়। সব মিলিয়ে সুন্দর বর্ননা।
    বানান…
    ঘরেছে~ গড়েছে
    স্হির~ স্থির
    টুকো ও~ টুকুও
    ঝড় ঝড়~ ঝরঝর
    শেউলি~ শিউলি

    Reply
  3. অচেনা আমি

    আসসালামু আলাইকুম। কবিতায় ষড় ঋতুর বর্ণনা তুলে ধরা হয়েছে। বেশ কিছু ভুল রয়েছে কবিতাটিতে। তাই কবিতাটি তেমন একটা মুগ্ধ করতে পারেনি। নিচে ভুলগুলো তুলে ধরার চেষ্টা করলাম :
    ঘরেছে – গড়েছে
    স্হির – স্থির
    সময় টুকো ও – সময়টুকুও
    শেউলি – শিউলি
    খালবিল – খাল-বিল
    কি সৃষ্টি – কী সৃষ্টি
    ঝড় ঝড় – ঝরঝর (ঝড় বলয়ে প্রাকৃতিক দুর্যোগ বোঝায়)

    আগামীর জন্য অনেক অনেক শুভ কামনা।

    Reply
  4. Halima tus sadia

    অনেক সুন্দর লিখেছেন।পড়ে ভালো লাগলো।
    বর্ণনা করেছেন দারুনভাবে।
    বাংলাদেশ ষড়ঋতুর দেশ।
    প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি।
    একের পর এক ঋতু আসে আর বাংলাদেশের রুপও বদলায়।
    এ যেনো স্রষ্টার সৃষ্টির শক্তি।
    শুভ কামনা রইলো।

    Reply
  5. Naeemul Islam Gulzar

    ষড়ঋতুর সৌন্দর্য নিয়ে কবিতা।ভালো লেগেছে।কিছু বানান ঠিক থাকলে আরোও ভালো লাগতো।শুভকামনা

    Reply
  6. Md Rahim Miah

    ঘরেছে – গড়েছে
    স্হির – স্থির
    টুকো ও – টুকুও
    নাই-নেয়
    খালবিল – খাল-বিল
    ঝড় ঝড় – ঝরঝর
    শেউলি-শিউলি
    আগমনে-আগমণে
    বাহ্ খুব সুন্দর লিখেছেন। তবে কবিতার নামের সাথে কবিতাটা মাঝে যা উল্লেখ করেছেন, তা খাটে না, তাই এই নামটা না দিলে ভালো হতো । কারণ এইখানে বাংলাদেশের সুন্দর্য্য ও প্রকৃতি রূপ নিয়ে কথা হয়েছে। যাইহোক শুভ কামনা রইল

    Reply

Submit a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *