মুগ্ধতা
প্রকাশিত: অগাস্ট ১৭, ২০১৮
লেখকঃ

 209 বার দেখা হয়েছে

এই লেখক এর আরও লেখা পড়ুনঃ

লেখা:-রোকসানা আক্তার
.
কিচিরমিচির শব্দে,
তাকিয়ে দেখি সজনের
ডালে।
কাঁচা ফাঁকা পাতার ফাঁকে,
হলদে পাখির ঠোকাঠুকি খেলা।
মুগ্ধ নয়নে তাকিয়ে থেকে,
প্রশংসা করি মহান প্রভুর।
.
স্ফুটিত আমের মুকুল,
ঝরে পড়ার দৃশ্য দেখে
কষ্ট হত খুব!
সময়ের ব্যবধানে কাঁচা
পাঁকা আমের স্বাদে,
অবচেতন মনে বলে উঠা।
হে নেয়ামত দাতা
শোকর তোমার প্রতিটা নেয়ামতের।
.
প্রচণ্ড খর তাপে।
আকাশ পানে তাকিয়ে দেখি।
এ তোমার কেমন লীলা!
মুহূর্তে করেছ জমিন
শীতল।
কৃতজ্ঞতায় নত হয়ে,
দু’হাত তুলি করুণাময়
তোমার দরবারে।

সম্পর্কিত পোস্ট

তুলসী বনের বাঘ

তুলসী বনের বাঘ --আল-মুনতাসির। চিনলে নাকো তাকে সে যে তুলসী বনের বাঘ ! ছদ্মবেশে ছড়িয়ে দিলো বিষম বিষের নাগ। ইচ্ছে করে কামড় খেলে, ভরলে হৃদয় বিষের নীলে কী করে আর দেখবে প্রিয় কৃষ্ণচুড়ার বাগ ? চিনলে নাকো তাকে সে যে তুলসী বনের বাঘ ! চোখে তোমার বিষের তেজে পর্দা এলো নেমে, জগত...

ভালোবাসা রং বদলায়

: ভালোবাসা রং বদলায় লেখা: অদ্রিতা জান্নাত ছোট মেয়েটা খুব করে কেঁদে কেঁদে অনুরোধ করেছিল আমি যেন একটি হলেও তার কাছ থেকে ফুল কিনে নেই, ঠিক যতবার আমি তাকে ঠেলে দূরে সরিয়ে দিচ্ছিলাম সে যেন ঠিক ততটাই আমার পিছু ছুটতে লাগল। আচ্ছা, এই যে শিশুটা যে কিছু টাকার বিনিময়ে আমাকে...

গোপন আর্তনাদ

কবিতা - গোপন আর্তনাদ #জয়নাল_আবেদীন মনে পড়ে কাজল চোখে মুগ্ধ করে রাখতে আমায়। কখনো নির্মল হাসিতে ভরিয়ে দিতে চারপাশ। ভুলে গেছো সেদিন ঘাটের পাশে নূপুর পায়ে নৃত্যের তালে এসেছিলে। লাল শাড়িটা এলোমেলো জড়িয়ে, মুখটা কেমন গম্ভীর ও করুণ দেখেছিলাম। বারবার আকাশে মেঘের গর্জন, বৃষ্টির...

১১ Comments

  1. Zinifa Efat

    আর একটু মনোযোগ দিয়ে লিখলে প্রকৃতি সামনে আসতো সুন্দর লাগতো,
    শব্দ চয়ন তেমন টা হয় নি দুর্বল,
    ভালো লাগলো, শুভকামনা

    Reply
  2. Anamika Rimjhim

    যেহেতু সজনে একটা সবজি …তাই সজনে গাছের* ডালে হবে।
    কাচা ফাঁকা -পাকা* সম্ভবত।
    পাঁকা-পাকা
    চরণ গুলোর একটু মিল থাকলে ভাল লাগতো বেশি।
    সৃষ্টিকর্তার সৃষ্টি সুন্দর …শুভ কামনা।

    Reply
  3. Halima tus sadia

    কাঁচা পাঁকা পাতার ফাঁকে হলদে পাখির ঠোকাঠুকির দৃশ্য খুবই সুন্দর।
    মহান আল্লাহ তায়ালা কতো সুন্দর করে সাজিয়েছেন এই ধরণী।স্রষ্টার অপার মহিমায় তার সৃষ্টিগগুলো বড়ই সুন্দর।দেখলে প্রাণ জুড়ে যায়।
    তার ইচ্ছেতে এই কঠোর রোদ, আবার এই শীতল হয়ে যায় ধরা।
    ভালোা লাগলো।প্রকৃতি ও আল্লাহর সৃষ্টি সম্পর্কে দারুণ কবিতা।
    লেখার হাত ভালো।
    কাঁচা ফাঁকা পাতা–কাঁচা পাঁকা পাতা

    শুভ কামনা রইলো।

    Reply
  4. Halima tus sadia

    ভোরবেলা পাখির কিচিরমিচির শব্দটা শুনতে সত্যিই অনেক ভালো লাগে ।কাঁচা পাঁকা পাতার ফাঁকে পাখির ঠোকাঠুকির খেলা ও দেখতে সুন্দর লাগে।
    মহান আল্লাহ তায়ালা কত সুন্দর করে এই ধরণী সৃষ্টি করেছেন।স্রষ্টার সৃষ্টির অপার মহিমায় আমাদের প্রাণ জুড়ে যায়।প্রাকৃতিক দৃশ্য দেখতে কতোই না ভালো লাগে।

    তার ইশারায় প্রচন্ড খরার পরেও শীতল জমীন হয়ে যায়।
    আমরা মহান রবের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করি সুন্দর করে ভূবন সৃষ্টি করার জন্য।
    ভালো লিখেছেন আপু।
    হ্নদয় ছুঁয়ে গেলো।
    কাঁচা ফাঁকা পাতার–কাঁচা পাঁকা হবে।
    শুভ কামনা রইলো।

    Reply
  5. Rabbi Hasan

    খুব সুন্দর হয়েছে। তবে কাঁচা ফাঁকা না হয়ে কাঁচা পাকা হতো।
    সত্যি প্রভুর অপরুপ সৃষ্টি

    Reply
  6. আফরোজা আক্তার ইতি

    আল্লাহ তায়ালার সৃষ্টি যে কত সুন্দর, তা আমাদের এই প্রকৃতির দিকে খানিক্ষণ চোখ বুলালেই বুঝা যায়। আল্লাহ কত যত্ন করে,। নিঁখুতভাবে আমাদের এই ধরণী সৃষ্টি করেছেন। সুবহানআল্লাহ। খুব সুন্দর কবিতা লিখেছেন। আরেকটু যত্ন এবং সময় নিয়ে লিখলেই আল্লাহর এই নিয়ামত আরো সুন্দর করে ফুটিয়ে তুলতে পারতেন। বানানে তেমন কোন ভুল নেই।
    কাঁচা ফাঁকা- কাঁচা পাকা হবে এই আর কি।
    শব্দচয়ন আরো একটু ভালো হলে সুন্দর হত, তাছাড়া ছন্দপতন হয়েছে। ভালো লিখেছেন। আরো লিখে যান। শুভ কামনা রইল।

    Reply
  7. আফরোজা আক্তার ইতি

    আসলেই আল্লাহর সৃষ্টি অনেক সুন্দর। তিনি কত সুন্দর করে, যত্ন নিয়ে এই পৃথিবী, এই প্রকৃতি আর আমাদের সৃষ্টি করেছেন। আল্লাহর অসীম দয়া। সুবহান আল্লাহ। খুব ভালো লিখেছেন। আরো একটু যত্ন নিয়ে লিখলে আরো ভালো হত।
    কাঁচা ফাঁকা- কাঁচা পাকা হবে।
    শুভ কামনা রইল।

    Reply
  8. Nahid Islam Rony

    মাশাআল্লাহ, ভাল লিখেছেন।বানান ভুল।চোখে পড়ে নি। কিন্তু ছন্দের ব্যবহার করা হয় নি।
    আর ” কিচিরমিচির শব্দে,” এইখানে ” কিচিরমিচির শব্দ!” একটা আশ্চর্য বোধক চিহ্ন দিলে ভাল হত। শুভ কামনা রইলো।

    Reply
  9. Rahim Miah

    প্রশংসা করি মহান প্রভুর খেলা, এই লাইনটা দিলে হয়তো ছন্দ মিলতো। যাইহোক বানানে তেমন ভুল নেই। আর যেগুলো ছিল বলেই দিয়েছে তাই আর বলছি না। তবে কবিতাটা পড়ে অনেক অনেক ভালো লেগেছে।

    Reply
  10. Sajjad alam

    আমার চোখে এই একটা কবিতা যেখানে কোনো বানান ভুল পাইনি।
    .
    নামকরণটা যথার্থ ছিলো।
    কনসেপ্টটাও ভালো লেগেছে।
    লেখনীর মধ্যে সাবলীলতা অাছে।
    .
    আমাদের চারপাশে তাকালে মহান প্রভূর অশেষ নেয়ামত দেখতে পাই আমরা। এমন নেয়ামত যা সবসময় আমাদের কাজে লাগে।
    এমন বিষয় নিয়ে লেখা কবিতাটা খুব ভালো লাগলো।
    শুভ কামনা।

    Reply
  11. Mahbub Alom

    খুব ভালো লিখেছেন।আমাদের সবসময় আল্লাহর শোকর আদায় করা দরকার।
    তিনি আমাদের অসংখ্য নিয়ামত দান করেছেন।তা আমরা ভোগ করি কিন্তু শোকর আদায় করি না।
    অবিতা থেকে কিছু শেখার আছে।শুভকামনা রইলো।

    Reply

Submit a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *