জ্যোৎস্না রাত
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ৫, ২০১৮
লেখকঃ

 417 বার দেখা হয়েছে

এই লেখক এর আরও লেখা পড়ুনঃ

মোঃ ফাইজুল ইসলাম হাফিজ
———————————————
একলা একা জ্যোৎস্না রাতে
দাঁড়িয়েছিলাম আলোকপাতে।
চাঁদ যেন তার সর্বস্ব শুভ্র আলো ঢেলে দিচ্ছে পৃথিবীর বুকে,
শনশন সমীর নির্জন সন্ধা কোথাও নেই প্রাণের আভাস পথঘাটে।
চাঁদের শুভ্র আলো প্রকৃতির এই নির্জন শোভা দেখে আমি অভিভূত,
অপূর্ব জ্যোৎস্না রাতে প্রকৃতির সাজে জোনাকিরা আজ উদ্
ভ্রান্ত।
জ্যোৎস্না রাতে চাঁদকে রূপার থালার মতো দেখায়,
সব বয়সী লোক গল্প – গুজব করে কিছু সময় কাটায়।
চাঁদ তার রুপালী আলোতে করে আলোকিত,
জ্যোৎস্না রাত কবি লেখকদেরকে করে উদ্দীপ্ত।
এই চমৎকার শুভ্র, রুপালী রাতে মনুষ্য ছায়ারাও হাটে,
জ্যোৎস্না রাত লোকদেরকে দেয় আনন্দ, দূর করে বিষন্ন, হৃদয়কে করে পুলকিত।
সেদিন জ্যোৎস্না রাতে আমি বুঝেছি প্রকৃতির কোলে সুন্দর্য কাকে বলে!

সম্পর্কিত পোস্ট

তুলসী বনের বাঘ

তুলসী বনের বাঘ --আল-মুনতাসির। চিনলে নাকো তাকে সে যে তুলসী বনের বাঘ ! ছদ্মবেশে ছড়িয়ে দিলো বিষম বিষের নাগ। ইচ্ছে করে কামড় খেলে, ভরলে হৃদয় বিষের নীলে কী করে আর দেখবে প্রিয় কৃষ্ণচুড়ার বাগ ? চিনলে নাকো তাকে সে যে তুলসী বনের বাঘ ! চোখে তোমার বিষের তেজে পর্দা এলো নেমে, জগত...

ভালোবাসা রং বদলায়

: ভালোবাসা রং বদলায় লেখা: অদ্রিতা জান্নাত ছোট মেয়েটা খুব করে কেঁদে কেঁদে অনুরোধ করেছিল আমি যেন একটি হলেও তার কাছ থেকে ফুল কিনে নেই, ঠিক যতবার আমি তাকে ঠেলে দূরে সরিয়ে দিচ্ছিলাম সে যেন ঠিক ততটাই আমার পিছু ছুটতে লাগল। আচ্ছা, এই যে শিশুটা যে কিছু টাকার বিনিময়ে আমাকে...

গোপন আর্তনাদ

কবিতা - গোপন আর্তনাদ #জয়নাল_আবেদীন মনে পড়ে কাজল চোখে মুগ্ধ করে রাখতে আমায়। কখনো নির্মল হাসিতে ভরিয়ে দিতে চারপাশ। ভুলে গেছো সেদিন ঘাটের পাশে নূপুর পায়ে নৃত্যের তালে এসেছিলে। লাল শাড়িটা এলোমেলো জড়িয়ে, মুখটা কেমন গম্ভীর ও করুণ দেখেছিলাম। বারবার আকাশে মেঘের গর্জন, বৃষ্টির...

৪ Comments

  1. আখলাকুর রহমান

    সন্ধা – সন্ধ্যা

    বিষন্ন – বিষণ্ণ

    সুন্দর্য – সৌন্দর্য

    মোটামুটি ভালো।
    বেশি করে লিখবেন। কবিতা পড়বেন।

    লিখতে লিখতে লেখক হবেন।

    শুভেচ্ছা আগামীর জন্য।

    Reply
  2. আফরোজা আক্তার ইতি

    চাঁদ আসলেই অনেক সুন্দর। যুগে যুগে সকল কবি লেখকদের লেখায়ই তুলে এসেছে চাঁদের সৌন্দর্য। মুগ্ধ করে অনুপ্রাণিত করেছে, উৎসাহ জুগিয়েছে লেখায়। চাঁদের আলো সত্যিই বড় মনোমুগ্ধকর।
    লেখা খুবই সুন্দর। শব্দচয়নও বেশ ভালো। তবে অনেক চরণে ছন্দপতন হয়েছে। বানানে কিছু ভুল আছে।
    সন্ধ্যা হবে।
    উদ ভ্রান্ত- উদ্ভ্রান্ত।
    বিষনং বিষণ্ণ।
    সুন্দর্য- সৌন্দর্য।

    Reply
  3. Halima tus sadia

    অসাধারণ কবিতা।
    পড়ে ভালো লাগলো।চাঁদকে নিয়ে মনোমুগ্ধকর কবিতা।শব্দচয়নো ভালো।

    যুগে যুগে অনেক কবি লেখকরা চাঁদকে নিয়ে বেশ সুন্দর
    গল্প কবিতা লিখেছেন।
    জ্যেৎস্না ভরা রাতের গল্প কতোই না সুন্দর। সেই চাঁদকে নিয়ে কতো প্রমিক প্রেমিকার জীবনের গল্প সাজানো হয়।
    বানানে ভুল আছে…

    সন্ধা–সন্ধ্যা
    বিষন্ন-বিষণ্ণ
    সুন্দর্য–সৌন্দর্য
    উদ ভ্রান্ত–ুউদভ্রান্ত
    শুভ কামনা রইলো।

    Reply
  4. মাহফুজা সালওয়া

    চাঁদ -সৌন্দর্য্যের প্রতীক।
    একে নিয়ে আপনার চিন্তাধারা সুন্দর মননকে প্রতীয়মান করে!
    কবে,কবিতাটা পড়ে তৃপ্ত হলাম না।
    কোথাও যেন অনেক গুলো কমতি ছিলো।
    নেক্সট টাইম আরও সময় নিয়ে, যত্ন করে কবিতা লিখবেন।
    শব্দচয়ন আর বানানের প্রতি বিশেষ নজর রাখবেন।
    শুভকামনা।

    Reply

Submit a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *