একটা কবিতা লিখবো বলে
প্রকাশিত: অক্টোবর ৪, ২০১৮
লেখকঃ

 77 বার দেখা হয়েছে

এই লেখক এর আরও লেখা পড়ুনঃ

লিখাঃফৌজিয়া ফাহমিদা অন্তর

একটা কবিতা লিখবো বলে
কলম ধরে ছিলাম,
শেষ হলো তার কালি,
ছন্দ ছাড়া কবিতা আমার
ধরলো অন্য পথের গলি।
নষ্ট হলো হাজার পাতা,
তিক্ত হলো শব্দ,
একি হলো আজ আমার,সব
করছে আমায় জব্দ।
কলম বলে লিখো না আর
কালি বলে থাম,
আজ লিখতে গিয়ে ঝরছে
আমার পায়ের নিচে ঘাম।
শব্দ গুলো এলোমেলো ছন্দ
হারায় তাল,
নষ্ট হওয়া পাতা গুলো দিচ্ছে
আমায় গাল।
হাতটা কাঁপে যখনই চাই লিখবো দু চার লাইন,
বেঁকে বসে মনের কথা দেখায়
নানান আইন।
আমার নাকি কমতি ছিল
ভালোবাসা অল্প,
ভুলেও নাকি হবে না তাই
নতুন প্রেমের গল্প।
লিখা নাকি বারন আছে মনের
বিপরীতে,
কেন যে আজ হচ্ছে এমন ইচ্ছে
করে জানতে।
মনের কথা বলবো কি আর
মনেই রয়ে থাকে,
একটা কবিতা লিখবো বলে
কলম ধরেছিলাম হাতে।

সম্পর্কিত পোস্ট

তুলসী বনের বাঘ

তুলসী বনের বাঘ --আল-মুনতাসির। চিনলে নাকো তাকে সে যে তুলসী বনের বাঘ ! ছদ্মবেশে ছড়িয়ে দিলো বিষম বিষের নাগ। ইচ্ছে করে কামড় খেলে, ভরলে হৃদয় বিষের নীলে কী করে আর দেখবে প্রিয় কৃষ্ণচুড়ার বাগ ? চিনলে নাকো তাকে সে যে তুলসী বনের বাঘ ! চোখে তোমার বিষের তেজে পর্দা এলো নেমে, জগত...

ভালোবাসা রং বদলায়

: ভালোবাসা রং বদলায় লেখা: অদ্রিতা জান্নাত ছোট মেয়েটা খুব করে কেঁদে কেঁদে অনুরোধ করেছিল আমি যেন একটি হলেও তার কাছ থেকে ফুল কিনে নেই, ঠিক যতবার আমি তাকে ঠেলে দূরে সরিয়ে দিচ্ছিলাম সে যেন ঠিক ততটাই আমার পিছু ছুটতে লাগল। আচ্ছা, এই যে শিশুটা যে কিছু টাকার বিনিময়ে আমাকে...

গোপন আর্তনাদ

কবিতা - গোপন আর্তনাদ #জয়নাল_আবেদীন মনে পড়ে কাজল চোখে মুগ্ধ করে রাখতে আমায়। কখনো নির্মল হাসিতে ভরিয়ে দিতে চারপাশ। ভুলে গেছো সেদিন ঘাটের পাশে নূপুর পায়ে নৃত্যের তালে এসেছিলে। লাল শাড়িটা এলোমেলো জড়িয়ে, মুখটা কেমন গম্ভীর ও করুণ দেখেছিলাম। বারবার আকাশে মেঘের গর্জন, বৃষ্টির...

৫ Comments

  1. বুনোহাঁস

    কতটা ভালোবাসা, মনের মাধুরী থাকলে এমন লেখা যায়?
    প্রতিটি শব্দচয়ন দোলা দিয়ে গিয়েছে মনে। বারংবার প্রতিধ্বনিত হচ্ছে। আলাদা একটা মায়া পড়েছে লেখনশৈলীতে।
    শুভ কামনা রইলো।

    Reply
  2. Halima tus sadia

    চমৎকার কবিতা।
    ছন্দের ধারাবাহিকতায় সুন্দর সাবলীল ভাষায় লিখেছেন।
    পড়ে মুগ্ধ হলাম।

    কলম ধরেছিলো একটা কবিতা লিখবে বলে,কিন্তু সেই কালি শেষ হয়ে গেল।লেখা আর হলো না।
    বানানেও কোনো ভুল নেই।
    মনে হলো একটা বানান ভুল হইছে….
    বারন-বারণ
    শুভ কামনা রইলো।

    Reply
  3. আফরোজা আক্তার ইতি

    কবিতার প্রতিটি চরণ চমৎকার। মনের অজান্তেই আবৃত্তি করছিলাম আমি। বেশ ভালো লাগলো পড়তে।
    মনের প্রতিচ্ছবি দিয়ে লেখায় ভালোবাসা আর কষ্ট ফুটিয়ে তুলেছেন। তবে কিছু কিছু চরণ এলোমেলো হয়েছে অর্থাৎ চরণের শুরুর শব্দ পূর্ববর্তী চরণে চলে গেছে। এটা টাইপিং মিস্টেক।
    কিছু ভুল উল্লেখ করে শুধরে দিচ্ছি। দয়া করে দেখে নিবেন।
    আজ আমার,সব- এখানে আজ আমার, এরপর স্পেস হবে এরপরে সব বসবে।
    দু চার- দু’চার।
    বারন- বারণ।
    অনেক শুভ কামনা।

    Reply
  4. Rifat

    কবিতাটি যতই পড়লাম ততই মুগ্ধ হলাম। খুব অসাধারণভাবে কবি তার মনের ভাব প্রকাশ করেছেন।
    পরিশেষে, আমি একরাশ মুগ্ধতা রেখে গেলাম।

    Reply
  5. Naeemul Islam Gulzar

    সত্যিই কবিতাটি আমার মন ছুঁয়ে গেছে।কবির জন্য হৃদয় থেকে শুভকামনা♥

    Reply

Submit a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *